কালোজিরার উপকারিতা
| |

কালোজিরার উপকারিতা ও নানাবিধ ব্যবহার

কালোজিরার উপকারিতা নানাবিধ হওয়ার কারনেই একে প্রাকৃতিক মহৌষধ হিসেবে স্বীকৃত দেওয়া হয়ে থাকে। কালোজিরার ইংরেজি  হচ্ছে Black Cumin। আর কালোজিরার বৈজ্ঞানিক নাম নাইজেলা সাটিভা। এই নামেও পরিচিত কালোজিরা। সারাবিশ্বে কালোজিরা একটি বহুল ব্যবহৃত ঔষধি গাছ। কালোজিরা এশিয়া এবং ভূমধ্যসাগরীয় অঞ্চলের একটি উদ্ভিদ। কালোজিরা হাজার হাজার বছর ধরে চিকিৎসাক্ষেত্রে, ঔষধ তৈরিতে এবং সৌন্দর্য চর্চায় ব্যবহৃত হয়ে…

কালোজিরার উপকারিতা নানাবিধ হওয়ার কারনেই একে প্রাকৃতিক মহৌষধ হিসেবে স্বীকৃত দেওয়া হয়ে থাকে। কালোজিরার ইংরেজি  হচ্ছে Black Cumin। আর কালোজিরার বৈজ্ঞানিক নাম নাইজেলা সাটিভা। এই নামেও পরিচিত কালোজিরা। সারাবিশ্বে কালোজিরা একটি বহুল ব্যবহৃত ঔষধি গাছ। কালোজিরা এশিয়া এবং ভূমধ্যসাগরীয় অঞ্চলের একটি উদ্ভিদ। কালোজিরা হাজার হাজার বছর ধরে চিকিৎসাক্ষেত্রে, ঔষধ তৈরিতে এবং সৌন্দর্য চর্চায় ব্যবহৃত হয়ে আসছে। শুধু তাই নয় রান্নায় ও কালোজিরা ব্যবহার করা হয়।  কালোজিরা বীজ অথবা তেল দুটিই ব্যবহারে উপকার পাওয়া যায়। কালোজিরার উপকারিতা অনেক বেশি। কারণ কালোজিরা ব্যবহারে যেকোনো সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়া সম্ভব। এজন্য আমাদের ইসলাম ধর্মে হযরত মুহাম্মদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন যে, “মৃত্যু ব্যতিত সকল রোগের মুক্তি  রয়েছে।কালোজিরা ব্যবহারে সকল রোগ থেকে মুক্তি পাওয়া যায় বা মুক্তি পাওয়া সম্ভব মৃত্যু ব্যতীত।  এজন্য হাদিসে কালোজিরা কে সকল রোগের মহা ঔষধ বলা হয়।

খেজুরের উপকারিতা ও বিভিন্ন রকম ব্যবহার জানতে ক্লিক করে পড়ে নিনঃ

কালোজিরতে রয়েছে  রয়েছে ভিটামিন, আমিনো অ্যাসিড, ফাইবার, প্রোটিন, আইরন,ফ্যাটি অ্যাসিড, সোডিয়াম, পটাশিয়াম এবং ক্যালসিয়াম। এটি শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি থেকে শুরু করে বদহজম, গ্যাস্ট্রিক, আলসার বিভিন্ন কঠিন সমস্যার প্রায় সব ধরনের সমস্যার সমাধান করে থাকে। তাছাড়া কালোজিরা একটি আকর্ষণীয় মসলা হিসেবে ব্যবহার করা হয়ে থাকে যা খাবার একটি সুন্দর সুগন্ধ যোগ করে। এটি তরকারি ডাল, রুটি, সিঙ্গারা, পাপড় এবং আচার ইত্যাদি এ রকম খাবারের মধ্যে ব্যবহার করা হয়। তাছাড়াও কালোজিরা যেকোনো মুদি দোকান অনলাইন কেনা যায়। কালোজিরা বীজ, কালোজিরার তেল, কালোজিরার জেল ক্যাপসুল কিনতে পাওয়া যায়। কালোজিরা যেকোনো ভাবে ব্যবহার করতে পারবেন। কারণ কালোজিরার উপকারিতা এত বেশি যে আপনি যে কোন খাবারের মধ্যে মিশিয়ে খেলে এর উপকার পাওয়া যায়।

তুলসী পাতার উপকারিতা এবং বিভিন্ন ব্যবহার জানতে ক্লিক করে পড়ে নিনঃ



কালোজিরার উপকারিতা

কালোজিরার অসংখ্য উপকারিতা যা বলে শেষ করা যাবে না। কালোজিরার উপকারিতা শুধু আয়ুর্বেদিক চিকিৎসা শাস্ত্রে নয় এটি বৈজ্ঞানিকভাবে ও প্রমাণিত। এজন্য কালোজিরাকে সকল রোগের মহাওষুধ বলা হয়। নাইজেলা নিয়ে গবেষণায় দেখা যায় যে এটি বিভিন্ন উপায়ে আপনার স্বাস্থ্যের উপকার করতে পারে।  কালোজিরা বিশেষভাবে শক্তিশালী একটি উপাদান যা প্রদাহ বিরোধী অ্যান্টি  এলার্জি এবং অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট বৈশিষ্ট্য রয়েছে। নিচে কালোজিরার কয়েকটি উপকারী তা তুলে ধরা হলো এই টিপসগুলো আপনার ভালো লাগলে অবশ্যই ফলো করতে পারেন।

 

উচ্চ অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট যুক্ত উপাদান

কালোজিরাতে প্রচুর পরিমাণ উচ্চ অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট রয়েছে যা ক্ষতিকারক ফ্রি রেডিক্যাল প্রতিরোধ করে। অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট স্থূলতা সহ কঠিন রোগের বিরুদ্ধে লড়াই করতে পারে। গবেষণায় দেখা গেছে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট গুলো স্বাস্থ্য এবংকঠিন রোগের উপর শক্তিশালী প্রভাব ফেলতে পারে।

 

ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করে

কালোজিরায় সবচেয়ে অন্যতম এবং পরিচিত উপকারিতা এটি ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রনে সহায়তা করতে পারে ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণ রাখতে প্রতিদিন সকালে এক কাপ চায়ে কালোজিরা অথবা কালোজিরার তেল আধা চামচ নিতে পারেন এবং কয়েক সপ্তাহের মধ্যে পার্থক্য দেখতে পাবেন।

 

হাঁপানি বা শ্বাসকষ্ট দূর করে

কালোজিরার আরেকটি অন্যতম উপকারিতা হচ্ছে হাঁপানি বা শ্বাসকষ্ট দূর করে। কালোজিরা যদি গরম জলে মিশিয়ে পান করেন। তাহলে শিশু এবং প্রাপ্তবয়স্ক উভয়ই উভয়ের শ্বাসকষ্ট উপশম করতে সহায়তা করে। তবে আপনাকে এটি কমাতে ৪৫ দিনের জন্য সাবধানে থাকতে হবে এবং সেই সময় ঠান্ডা পানীয় এবং খাবার এড়িয়ে চলতে হবে।

 

ক্যান্সার প্রতিরোধ করতে সাহায্য করে

কালোজিরাতে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট রয়েছে যা ক্যান্সারের মতো কঠিন রোগের বিরুদ্ধে লড়াই করতে সাহায্য করে। গবেষণায় দেখা গেছে কালোজিরাতে ক্যান্সারবিরোধী প্রভাব সম্পর্কিত ফলাফল পাওয়া গেছে। আরেকটি  টেস্টটিউব গবেষণায় দেখা গেছে অগ্নাশয়, ফুসফুস, স্তন, ত্বক এবং কোলন ক্যান্সার সহ বিভিন্ন ধরনের ক্যান্সারের বিরুদ্ধে কার্যকর হতে সাহায্য করে।


লিভার রক্ষা করতে সাহায্য করে

লিভার একটি অবিশ্বাস্যভাবে গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গ। কালোজিরা  প্রক্রিয়াজাত করে  প্রোটিন এবং রাসায়নিক পদার্থ তৈরি করে যা স্বাস্থ্যের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। কালোজিরা লিভারকে আঘাত এবং ক্ষতি থেকে রক্ষা করতে সাহায্য করতে পারে।

 

উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ করে

কালোজিরার  একটি উপকারিতা হচ্ছে উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ করতে সাহায্য করে।উচ্চরক্তচাপের যারা ভুগছেন তারা হাইপার টেনশন নিয়ন্ত্রণে রাখতে আধা চামচ কালোজিরা তেল গরম পানির সাথে মিশিয়ে পান করতে পারেন।

 

কিডনি রক্ষা করে

কালোজিরা কিডনি রক্ষা করতে সাহায্য করে। কিডনিতে পাথর একটি সাধারণ সমস্যা। আধা চামচ কালোজিরার তেলের সাথে দুই চামচ মধু ও গরম পানি মিশিয়ে খেলে কিডনি ব্যথা, পাথর এবং সংক্রমণ থেকে মুক্তি পাওয়া যায়।

 

হজম সংক্রান্ত সমস্যা দূর করে

কালোজিরা হজম সংক্রান্ত যেকোন সমস্যা দুর করতে এক জাদুকরি ভূমিকা পালন করে থাকে। হজম জনিত বিভিন্ন রোগ বালাই যেমনঃ পেট ফাপা, বদ-হজম, গ্যাস্ট্রিক, আলসার ইত্যাদি দূর করতে কালোজিরার থেকে ভালো কোন আর প্রাকৃতিক ওষুধ হতেই পারেনা।

 

মাথা ব্যথা দূর করে

বর্তমান সময়ের সাধারণ  সমস্যা গুলির মধ্যে একটি সমস্যা হলো মাথাব্যথা। কালোজিরা মাথাব্যথা দূর করতে সাহায্য করে। মাথা ব্যথা শুরু হলে ঔষধ খাওয়ার পরিবর্তে আপনার কপালে কালোজিরার তেল লাগিয়ে নিন। চোখ বন্ধ করে আরাম করুন এবং আপনার মাথা অদৃশ্য হওয়ার জন্য অপেক্ষা করুন।

 

জয়েন্টের ব্যথা দূর করে

এটি একটি পুরনো চিকিৎসা। একমুঠো কালোজিরা নিয়ে সরিষার তেল দিয়ে ভালো করে গরম করুন তারপর হালকা গরম তেল জয়েন্টে মাসাজ করুন।তাহলে দ্রুত জয়েন্টের ব্যথা দূর হবে।

 

খর জ্বর সর্দি কাশি দূর করে

কালোজিরা খরজ্বর সর্দি কাশি কমাতে সাহায্য করে।জ্বর এবং ঠান্ডা লাগলে চায়ের মধ্যে কালোজিরা অথবা কালোজিরার তেল আধা চা চামচ মিশিয়ে পান করতে হবে।  তাহলে জ্বর এবং সর্দি কাশি খুব দ্রুত ভাল হয়ে যাবে।

 

রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করতে সাহায্য করে

কালোজিরা রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করতে সাহায্য করে। কারণ কালোজিরাতে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট রয়েছে কারণ যা রোগের বিরুদ্ধে লড়াই করতে সাহায্য করে।


স্মৃতিশক্তি বৃদ্ধি করে

কালোজিরা স্মৃতিশক্তি বৃদ্ধি করতে সাহায্য করে। কালোজিরার সাথে মধু মিশিয়ে খেলে স্মৃতিশক্তি বৃদ্ধি পায়।

 

ওজন কমাতে সাহায্য করে

যারা ডায়েটে আছেন তাদের জন্য তাদের জন্য গরম জল মধুএবং লেবুর রস প্রায়ই সুপারিশ করা হয় এবার এই মিশ্রণে কালোজিরা যোগ করুন এবং দেখুন এটি কিভাবে কাজ করে।

 

অ্যালার্জি কমাতে সাহায্য করে

কালোজিরার তেল মৌসুমী এলার্জি কমাতে সাহায্য করে। কালোজিরার তেল থাইমোকুইনোন একটি অ্যান্টি হিস্টামিন হিসেবে কাজ করে।

 

পুরুষের যৌন ক্ষমতা বৃদ্ধি করে

কালোজিরা যৌনাঙ্গের দুর্বলতা দূর করে এবং যৌন ক্ষমতা বৃদ্ধি করতে সাহায্য করে।

 

দাঁত মজবুত করে

আপনি জানেন কি দাঁতের যে কোন সমস্যা যেমন মাড়ি ফুলে যাওয়া রক্ত পড়া এবং দুর্বল দাঁতের যত্ন নিতে কালোজিরার তেল দিয়ে দাঁত মাসাজ করতে হবে।

 

ত্বকের যত্নে কালোজিরা

কালোজিরা ত্বকের যত্নে খুবই উপকারী।ত্বক থেকে ব্রণ, ব্রণের দাগ, কালো দাগ সহ বিভিন্ন ক্ষত দাগ দূর করে।ত্বককে উজ্জ্বল এবং মসৃণ করতে সাহায্য করে।

 

চুলের যত্ন কালোজিরা

চুল পড়া থেকে শুরু করে চুল পাকা সকল সমস্যা দূর করে কালোজিরা। কালোজিরার তেল ব্যবহারে চুল পড়া বন্ধ হয় মাথার খুশকি দূর হয় চুল পাকা রোধ হয় এবং চুল মসৃণ এবং উজ্জ্বল হয়।

কারো কারো ক্ষেত্রে কালোজিরার পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া হতে পারে।অতিরিক্ত কালোজিরার ব্যবহার এলার্জি সমস্যা হতে পারে।  কিডনি অথবা লিভারে সমস্যা দেখা দিতে পারে। এজন্য আপনার বড় কোনো সমস্যা থাকলে কালোজিরা ব্যবহারের আগে অবশ্যই ডাক্তারের পরামর্শ নিবেন। 


Similar Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *